পাত্র বিসিএস ক্যাডার, নাম বিপুল কুমার সরকার

পাত্র বিসিএস ক্যাডার, পাত্র, ভুয়া পাত্র, ভুয়া পরিচয়ে বিয়ে
প্রতীকী ছবি

পত্রিকায় ‘হিন্দু পাত্রী চাই’ বিজ্ঞাপন দেখে মেয়ের বাবা যোগাযোগ করলেন পাত্রের সাথে। পাত্র বিসিএস ক্যাডার। মন্ত্রনালয়ে চাকুরী করে। নাম বিপুল কুমার সরকার (ছদ্মনাম)। প্রথম স্ত্রী মৃত্যুবরন করায় বিপত্নীক লোকটি আবার বিয়ে করতে চায়। হোক না বিপত্নীক! বিসিএস ক্যাডারতো! এমন পাত্র কি হাতছাড়া করা যায়!

আরো দেখুন- প্রিমিয়ার ভিপিএন ব্যবহার করুন একদম ফ্রিতে

যোগাযোগের প্রেক্ষিতে পাত্র তার জীবন বৃত্তান্ত পাঠাল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাশ করেছে। মাগুরা জেলায় বাড়ি। সবকিছুই লোভনীয়। অতএব রংপুর শহরের এক অভিজাত হোটেলে মেয়েকে দেখার আয়োজন হল। দেখা হল। পাত্রতো আগে থেকেই পছন্দ। পাত্রেরও মেয়ে দেখে পছন্দ হল। অতএব বিয়ের দিন তারিখ ঠিক হয়ে গেল।

দু’একদিন পর পাত্র ফোন করে জানাল, তার বদলীর জন্য অনেক টাকা ঘুষ দিতে হবে। আপাতত পাঁচ লাখ টাকা হলে বদলীর প্রক্রিয়াটি শুরু করা যেতে পারে। ব্যাংক হিসাব নম্বর দিয়ে টাকাটা দ্রুত পাঠাতে অনুরোধ করল সে। 

তখনই পাত্রী পক্ষের টনক নড়ল। খোঁজ খবর নেয়া শুরু হল। অবশেষে জানা গেল প্রতারনার শিকার হয়েছে তারা। লোকটির আসল নাম আলম শাহজাদা। তার দেয়া সব তথ্যই মিথ্যা।

সাম্প্রতিক প্রতারণার কাহিনী এটি। লোভের বশে অথবা জৈবিক তাড়নায় মোহগ্রস্থ হয়ে অথবা অন্য কোন কারনে প্রতিনিয়ত নানা ধরনের প্রতারণার শিকার হচ্ছেন অনেকেই।

আরো দেখুন- ১০০ ডলার দামের এডভান্স এডোবি ফটোশপ কোর্স একদম ফ্রি

অতএব সিদ্ধান্ত নেবার আগে বারবার ভাবুন। যাচাই বাছাই না করে সিদ্ধান্ত নিয়ে নিজের বা সন্তানের বা পরিবারের অন্য কারো জীবন বিপন্ন করবেননা। বন্ধুর ছদ্মাবরনে প্রতারণা করার জন্য আপনার পাশেই কেউ থাকতে পারে। 

জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপে সচেতন হোন। ইতিহাস থেকে শুরু করে সমসাময়িক অজস্র ঘটনা থেকে শিক্ষা নিন।

স্বজনকে নিয়ে ভাল থাকুন। নিরাপদ থাকুন। মানসিক এবং শারীরিকভাবে সুস্থ থাকুন। শান্তিতে থাকুন।

দেবদাস ভট্টাচার্য
ডিআইজি, বাংলাদেশ পুলিশ রংপুর