আধুনিক যুগে প্রেম | প্রেমের প্রকৃত ব্যাখ্যা

প্রেমের প্রকৃত ব্যাখ্যা, প্রেম কি, প্রেম কিভাবে হয়, আধুনিক যুগে প্রেম
শ্রীকৃষ্ণের প্রতি মীরা বাঈয়ের প্রেম একটি প্রকৃত প্রেম

ছেলে মেয়ে উভয়ই প্রেম করার জন্য উৎসুক থাকে। কারণ এটা অনুভূতির মাধ্যম। কিছু ব্যক্তি বলে, প্রেম দিয়ে বিশ্ব জয় করা যায়। আসলে এখানে জয় তখনই হবে, যখন প্রেমে প্রকৃত শব্দটা থাকলে।

বর্তমানে পরিসংখ্যান দিক দিয়ে দেখলে প্রায় ৭০ শতাংশ মানুষ প্রেম করে সাময়িক সময় কাটানোর জন্য। প্রকৃত প্রেম কেউ আসলে করে না। 

দেখুন প্রেম শব্দে অনেক কিছু লুকিয়ে থাকে।  যারা প্রকৃত প্রেম করে, একমাত্র তারাই অনুভব করতে পারে। প্রেমে যত সময় দিবেন ও পরিচর্যা করবেন ততই প্রকৃতর দিকে এগোবে। অনেকটা একটা চারাগাছের মত, যতই পরিচর্যা করবেন গাছটি ততই তাড়াতাড়িভাবে বেড়ে উঠবে। পরিশেষে সে গাছ থেকে অক্সিজেন ও ফল পাবেন। ফলে প্রেমেও পজেটিভ ভাব ও পরিশেষ মিলন ঘটবেই।

কিন্তু বর্তমানে মেয়ে ও ছেলে সম্পর্কে লেখা-

  • তারা প্রকৃত প্রেমে বিশ্বাসী না। কারণ তারা ভবিষ্যৎ নিয়ে বেশি ভাবতে গিয়ে অনেকটা লুচ্চামিতে পা দেয়। খতিয়ে দেখলে তারা কয়েকজনের সাথে প্রেম করে।  হয়তো বেশিও হতে পারে। এক্ষেত্রে তাদের প্রকৃত প্রেমের আবেগ শূন্য থাকে। তারা প্রেমের অর্থ বুঝে না।
  • আর কিছু মেয়ে ছেলে আছে গিরগিটির মত তাদের প্রেমের মানুষকে পাল্টায়। অর্থাৎ আজ একদিন চলমান। ভালো না লাগলে এটাকে বাদ দিয়ে অন্য নতুন আরেকটার খোঁজ করা। তারপর আরেকজন এরকম চলমান থাকে। এ ক্ষেতে লুচ্চামির চরম পর্যায়ে গিয়ে নোবেল লুচ্চামি পুরস্কারে পুরস্কৃত হয়। 


বর্তমানে প্রকৃত প্রেম যারা করে তাদের সম্পর্কে লেখা-

যারা প্রেম শব্দেন্দ্রিয় বুঝে তারা অপেক্ষা করে যায় যতক্ষণ প্রকৃত প্রেম উদয় না হয়। তারা অপেক্ষা করে থাকে তারা প্রেমিক/প্রেমিকার জন্য। অনেকটা সবুরে মিউ ফলের মতো।

যারা প্রকৃত প্রেমিক/প্রেমিকা তাদের আবেগ দেখলে বুঝবেন তারা আসলেই প্রকৃত প্রেমের সন্ধানে আছে।

প্রেমকে ধরা যায় না শুধু অনুভব করা যায়।  চোখ বন্ধ করলে প্রিয়তম /প্রিয়তমার ছবি স্পষ্ট চোখের সামনে ভেসে আসে তাহলে বুঝবেন সেটা প্রকৃত প্রেম আর যদি না আসে তাহলে বুঝবেন আপনার প্রেম প্রকৃত নয়। 

এখানে একটা বিষয় খুবই গুরুত্বপূর্ণ সেটা সকলের উদ্দেশ্যে বলা। সব সময় মনে রাখার চেষ্টা করবেন।

মানুষকে যদি শারীরিক নির্যাতন করা হয় তাহলে সেটা কিছুদিনের জন্য স্মরণে পিড়া দেয়। কিন্তু সেটা যদি কথা বা আবেগের মধ্যে হয় তাহলে সেটা মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তাকে পিড়া দেয়। 

যারা প্রেমে লুচ্চামি করে তারা জীবনপথে তা ফল ভোগ করেই। আপনার কর্মের মাধ্যমে আপনার ফল আসবেই।

আপনি লুচ্চামি বা ধোকা দিচ্ছেন এগুলোর ফল আপনার জীবনে কোন না কোন সময়ে আসবেই।অনেকটা পাপ বাপকেও ছাড়ে না। কারণ মানুষের মন থেকে যে অভিশাপ আসে সেটা কখনই খন্ডন করা যায় না।

সকলের কাছে আহ্বান প্রকৃত প্রেম করেন, সুখী থাকুন। প্রেমের সঠিক মর্যাদা দিন। আপনাদের কারণের প্রেমের প্রকৃত ব্যবহার এখন হারাই যাচ্ছে। লুচ্চামি থেকে সঠিক পথে আসুন। যে আপনাকে প্রকৃত ভালোবাসে, তাকে সেই প্রকৃত ভালোবাসা দিন।মানুষের আবেগ নিয়ে খেলার অধিকার কারোর নেই। বর্তমান সময় অনেক পাল্টিয়েছে প্রকৃত প্রেমকে পরিবারও মেনে নিতে বাধ্য। 

গাছ লাগান পরিবেশ বাঁচান।
প্রকৃত প্রেম করে, মনের প্রকৃত পরিবেশকে বাঁচান।

কলমে- শ্রীরিগ্যান নাথ